সপ্তমীতে ঘোরাঘুরি : কিছু মুহূর্ত শেয়ার

in hive-129948 •  14 days ago  (edited)

অন্য আর পাঁচটা বছরের ন্যায় এ বছরটা তেমন জমাটি হয়নি দুর্গা পুজোতে । আর গত বছর তো বলতে গেলে পুজো হয়ইনি । আমি তো মোটেও বেরোইনি গত বছর ।এ বছর আমাদের স্টেটে এই সময়টায় করোনার প্রকোপ অনেকটাই কম থাকায় বেরোনোর সিদ্ধান্ত নিই; তবে অবশ্যই মাস্ক পরে । সন্ধ্যা ৭ টার দিকে একটা টোটো রিজার্ভ করে বেরিয়ে পড়ি আমরা ক'জনা - আমি, তনুজা, টিনটিন আর তনুজার মা ।

IMG_0346.JPG

IMG_0345.JPG

IMG_0348.JPG

IMG_0349.JPG

IMG_0350.JPG

IMG_0351.JPG

পুজো প্যান্ডেল -০১
আলোকচিত্র তোলার তারিখ ও সময় : ১২ই অক্টোবর ২০২১, সন্ধ্যা ৬ টা বেজে ৪৯ মিনিট
স্থান : পশ্চিমবঙ্গ, ভারত ।

সন্ধ্যা ৭ টায় আমাদের বাড়ির কাছে প্রথম মন্ডপটিতে যাই ঠাকুর দেখতে । গিয়ে একেবারে হতাশ । যারা বছর বছর ৫০-৬০ লাখ খরচা করে পুজো করে তারা এবার ১ লাখও খরচ করেছে কি না সন্দেহ ! যেখানে প্রতি বছর এক মাইল লম্বা লাইন দিয়ে ঠাকুর দেখি সেখানে ১ মিনিটে ঠাকুর দেখা সারা । পরে অবশ্য দেখলাম শুধু এ প্যান্ডেলে নয়, ৯০% প্যান্ডেলে এবার থিম পুজো হয়নি । কারণটা অবশ্যই করোনা । বিশাল জাঁকজমক পূর্ণ থিম প্যান্ডেল হলে মাইলের পর মাইল লম্বা লাইন হয়ে যায় দর্শনার্থীদের । ফলে এতো ভিড়ে বিপদ ঘটার সম্ভাবনা থেকেই যায় ।

IMG_0352.JPG

IMG_0354.JPG

IMG_0355.JPG

IMG_0356.JPG

IMG_0357.JPG

IMG_0359.JPG

IMG_0361.JPG

IMG_0367.JPG

IMG_0368.JPG

IMG_0369.JPG

IMG_0370.JPG

পুজো প্যান্ডেল -০২
আলোকচিত্র তোলার তারিখ ও সময় : ১২ই অক্টোবর ২০২১, সন্ধ্যা ৭ টা বেজে ১৪ মিনিট
স্থান : পশ্চিমবঙ্গ, ভারত ।

এরপরে গেলাম আর একটি প্যান্ডেলে, এরা কিছুটা সাজ সজ্জা করেছে, তবে আহামরি কিছু নয় । প্রত্যেক বছর যেমন করে তেমনি করেছে । টিনটিনবাবু ঘুমে একেবারে কাদা ।তাই শুধু আমি আর তনুজা টোটো থেকে নেমে গেলাম প্রতিমা দর্শনে । প্রত্যেক মণ্ডপেই মা দুর্গার মুখটি অসম্ভব সুন্দর করেছে । শান্ত, স্নিগধ, মমতাময়ী মুখশ্রী । শুধু, একটা জিনিস দেখে হতাশ হলাম । বাঙালিরা কি সিংহ কোনো কালে দেখেনি নাকি ? কোত্থাও সিংহটা ঠিকঠাক বানাতে পারেনি ।

IMG_0371.JPG

IMG_0372.JPG

IMG_0373.JPG

IMG_0375.JPG

IMG_0378.JPG

IMG_0380.JPG

IMG_0385.JPG

পুজো প্যান্ডেল -০৩
আলোকচিত্র তোলার তারিখ ও সময় : ১২ই অক্টোবর ২০২১, সন্ধ্যা ৭ টা বেজে ২০ মিনিট
স্থান : পশ্চিমবঙ্গ, ভারত ।

ঘুরে ঘুরে পুজো দেখতে থাকলাম । এবার থিম পুজো আর জাঁকজমক না হওয়াতে সব ভিড় হলো রাস্তা ঘাটে আর রেস্টুরেন্টে, পথের ধারের ফুচকা, ঘুগনি, রোল, চাউমিন এর দোকানে । এতো ভিড় দেখে শিউরে উঠতে হয় । একটা পুজো প্যান্ডেলের মাঠে আবার ছোটো খাটো একটা মেলা বসে গেছে । খেলনার দোকান, খাবারের দোকান । মানুষ গিলেই চলেছে সর্বত্র । আমি মেলা থেকে টিনটিনবাবুর জন্য একটা বেলুন হাঁস কিনলাম ।

IMG_0390.JPG

IMG_0394.JPG

IMG_0395.JPG

IMG_0396.JPG

IMG_0397.JPG

IMG_0398.JPG

IMG_0399.JPG

IMG_0400.JPG

IMG_0401.JPG

IMG_0405.JPG

পুজো প্যান্ডেল -০৪
আলোকচিত্র তোলার তারিখ ও সময় : ১২ই অক্টোবর ২০২১, সন্ধ্যা ৭ টা বেজে ২৭ মিনিট
স্থান : পশ্চিমবঙ্গ, ভারত ।

এক জায়গায় পুজো দেখতে গিয়ে জ্যামে ফেঁসে গেলাম প্রায় ১০-১৫ মিনিট এর মতো, বিশাল জ্যাম । কোনোমতে জ্যাম-এর হাত থেকে নিষ্কৃতি মিলতে ছুটলাম আরো একটি প্যান্ডেলে । গিয়ে দেখি বিশাল প্রতিমা, সাদা ঝকঝকে । দেখতে দারুন । অসম্ভব ভিড় ছিল, তাই ওখানে ৩০ সেকেন্ডের মতো ছিলাম ।

IMG_0408.JPG

IMG_0409.JPG

IMG_0410.JPG

IMG_0413.JPG

পুজো প্যান্ডেল -০৫
আলোকচিত্র তোলার তারিখ ও সময় : ১২ই অক্টোবর ২০২১, সন্ধ্যা ৮ টা বেজে ০৬ মিনিট
স্থান : পশ্চিমবঙ্গ, ভারত ।

এ বছর উল্লেখযোগ্য কোনো প্যান্ডেলই নেই যেখানে জাঁকজমক হয়েছে । একেবারেই অনাড়ম্বর ভাবে পুজো হয়েছে আমাদের এলাকায় সর্বত্র । যাই হোক টোটাল ১১ টার মতো পুজো প্যান্ডেলে ঘুরে চলে এলুম বাড়িতে । এসে আবার আমাদের পাড়ার মাঠের পুজোতে গেলাম সন্ধ্যারতি দেখতে । কিছুক্ষন দেখে রাত সাড়ে ন'টা নাগাদ সোজা বাড়ি ।

IMG_0389.JPG

IMG_0425.JPG

পুজো প্যান্ডেল -০৬ ও -০৭
আলোকচিত্র তোলার তারিখ ও সময় : ১২ই অক্টোবর ২০২১, সন্ধ্যা ৮ টা বেজে ৩৬ মিনিট
স্থান : পশ্চিমবঙ্গ, ভারত ।


ক্যামেরা পরিচিতি : Apple
ক্যামেরা মডেল : iPhone 12
ফোকাল লেংথ : ৪ মিমিঃ

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE STEEM!
Sort Order:  

দাদা প্রথমেই শারদীয় দূগা পূজার শুভেচ্ছা রইল আপনার জন্য। আজকে দাদা আপনি খুবই সুন্দর একটি দিন কাটিয়েছেন। অনেকগুলো পূজা মন্ডপ ভ্রমণ করেছেন এবং সুন্দর ভাবে আজকের দিনটি পালন করেছেন। আপনার ফটোগ্রাফি গুলো খুবই সুন্দর হয়েছে। প্রতিটা ফটোগ্রাফি আমার অনেক ভালো লেগেছে। আপনার আনন্দের দিনটা আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ দাদা আপনাকে।

ভীষণ সুন্দর কারুকার্য পুজা মন্ডপের । ভালো লাগছে পরিবেশটা । নিজের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হোক , উৎসব আনন্দ ছড়িয়ে পড়ুক সর্বত্র। শারদীয় শুভেচ্ছা রইল ☺❤

ফটো গুলো খুব ভালো হয়েছে দাদা। আর হবেই বা না কেন আইফোন বলে কথা। আপনাকে শারদীয় দূর্গাউৎসব এর শুভেচ্ছা। প্রচুর ঘুরে বেড়ান আনন্দ করুন তবে সাবধানতা বজায় রেখে। আপনার জন্য শুভকামনা।।

মন্ডপের কাজকর্ম গুলো দেখছি একদম এলাহী।
অনেক বিশাল ব্যবস্থা সব কিছুর ই।
এতো গুলো মন্ডপ একসাথে ঘুরাও অনেক কষ্টের ব্যাপার মনে হচ্ছে। শুভদিনের শুভেচ্ছা রইলো দাদা আপনার জন্য। আর টিনটিন বাবাই এর জন্য ভালোবাসা।

দাদা প্রথমেই শারদীয় শুভেচ্ছা রইল আপনার এবং আপনার পরিবারের জন্য। টিন টিন বাবুর জন্য রইল ভালবাসা। খুব সুন্দর ভাবে পূজা মন্ডপের দৃশ্য গুলো ক্যামেরা বন্দী করছেন। শুনেছি কিন্তু কখনও বাস্তবে দেখা হয় নি পশ্চিমবাংলার পূজো।কিন্তু আপনার ছবির মাধ্যমে তবু একটু পশ্চিম বাংলার পূজোর সৌন্দর্য দেখতে পেলাম। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আশাকরি আরো পূজোর বাস্তব ছবি আমাদের দেখাবেন। ভাল থাকবেন।

আজকে দাদা খুবই সুন্দর একটি দিন কাটিয়েছেন। অনেকগুলো পুজো প্যান্ডেল ভ্রমণ করেছেন এবং সুন্দর ভাবে আজকের দিনটি পালন করেছেন। পরিবার সাথে নিয়ে এভাবে সুন্দর একটি দিন কাটিয়েছেন আমার মনে হচ্ছে আপনি আজকের দিনটা খুবই খুবই ভালো ভাবে পালন করেছেন। আপনার ফটোগ্রাফি গুলো খুবই সুন্দর হয়েছে। প্রতিটা ফটোগ্রাফি আমার অনেক ভালো লেগেছে। শুভেচ্ছা রইলো দাদা🌻🌹🌻।

ধন্যবাদ দাদা কথা রাখার জন্য। বলেছিলাম আপনার আনন্দের মূহুর্ত আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য, আর তাই আপনি আমার কথা রেখেছেন ও। আরো বেশি ধন্যবাদ কারণ টিনটিন সোনাকে দেখানোর জন্য, অনেকদিন দেখিনা। আর বৌদিকে বলবেন কিন্তু যে আমাদের মিষ্টি বৌদিকে দেখতে অনেক বেশি মিষ্টি লাগছে। আর আপনার কথা কি আর বলবো দাদা!এবার তো চোখে, মুখে সবটাতেই মাক্স। 🤪

দাদা শারদীয় দূর্গা পূজার শুভেচ্ছা নিবেন। আপনার জন্য অনেক অনেক ভালোবাসা ও শুভকামনা । পুজোর বাকি কয়টি দিন ভাল কাটুক আপনার।

এতো এতো ফটোগ্রাফি আর সাথে সাতটি পুজো প্যান্ডেল ঘোরেছেন, তবুও বলছেন কিছু মুহুর্ত!

ফটোগ্রাফিগুলো অসম্ভব সুন্দর ছিলো, যদিও আপনার ফটোগ্রাফিগুলো সব সময়ই ভালো হয়। আর আপনার সেলফি দেখে তো রীতিমতো ভয় পেয়ে গিয়েছি, হি হি হি।

দৃশ্যগুলোর সাথে পরিবেশটা বেশ উৎসবমুখর ছিলো, ধন্যবাদ আমাদের সাথে সুন্দর মুহুর্তগুলো ভাগ করে নেয়ার জন্য।

শুভ অষ্টমী পূজার শুভেচ্ছা দাদা।খুব সুন্দর পরিবেশ।এইরকম পরিবেশে নিরিবিলি মায়ের মুখ দর্শন করা যায় এবং ছবিগুলো সময় নিয়ে সুন্দরভাবে ক্যামেরাবন্দি করাও যায়।পূজামণ্ডপগুলি কম বাজেটের মধ্যে ভালোই ফুটিয়ে তুলেছে। এখনো মানুষের মনে করোনা আতঙ্ক কমেনি।টিনটিন বাবু পূজা দেখতে দেখতে দিদার কোলে ঘুম।খুব সুন্দর মুহূর্ত কাটিয়েছেন দাদা।ধন্যবাদ আপনাকে।

সবে ভালোয় মন্দে বুঝলেও, টোটো কোন ধরনের বাহন মাথায় ধরেনা। আমি এ নামের সাথে আগে কখনো পরিচিত ছিলাম না।স্বাগতম আপনাকে

সপ্তমীতে ঘোরাঘুরিতে আপনার ফটোগ্রাফি গুলো সহ পোস্টটি অনেক সুন্দর হয়েছে। সেই সাথে দুর্গা ও অন্যান্য ভাস্কর্যের প্রতিমাগুলো নিপুণভাবে তৈরি। সবাইকে নিয়ে খুব মজাই করেছেন ভাই।খুব ভালো। ধন্যবাদ ও অভিনন্দন আপনি ও আপনার পরিবারের সবাইকে।

  ·  14 days ago (edited)

হা দাদা ঠিক বলেছেন করোনার কারণে এবার থিম পূজা কম হয়েছে। কাছাকাছি ও পাড়ার পূজা দেখতে গেছিলেন। প্রতিটি ফটোগ্রাফিগুলি খুবই সুন্দর হয়েছে। খুব ভালো লাগলো।পরিবারের সাথে অনেক চমৎকার মুহূর্ত কাটিয়েছেন। অনেক অনেক শুভ কামনা রইলো আপনার পরিবারের জন্য দাদা।

শারদীয় শুভেচ্ছা দাদা। দারুন লাগলো এই পোস্টটা পড়ে। এত সুন্দর সুন্দর প্যান্ডেল চোখ সরানো যায় না যেন। আর মায়ের মুখ এর তো তুলনা নেই গো দাদা। আহা কি সুন্দর হাতের কাজ সব গুলো। খুব খুব ভালো লাগলো। মা সকলের মঙ্গল করুন। ❤️🙏

শুভ নবমীর পূজার শুভেচ্ছা দাদা।দাদা অনেক সুন্দর হয়ছে আপনার ফটোগ্রাফি গুলো ।আর প্রতি মন্ডবের কারুকার্য গুলো দেখার মতো ছিলে ।আর টিনটিন বাবুকে অনেক সুন্দর লাগছে।দাদা সব মিলে অনেক সুন্দর পূজা ঘোরাঘুরি মুহূর্ত কাটিয়েছেন ।ধন্যবাদ দাদা।

অনেক খুশি হয়েছি দাদা, আপনার প্রতিটি খুশির মুহূর্ত আমাদের সাথে শেয়ার করেছেন। আপনার পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘুরতে বেরিয়েছেন। বৌদি কে খুবই সুন্দর লাগছে। আর টিনটিন বাবুকে দেখলে আমার কি যে ভাল লাগে তা বলে বুঝতে পারব না।

অনেক অনেক শুভ কামনা রইল দাদা আপনাদের জন্য। বাকি দিন গুলো যেন অনেক সুন্দর ভাবে কাটে।

দাদা পুজো প্যান্ডেলে ছবিগুলো চমৎকার তুলেছেন। পশ্চিমবঙ্গের পুজো কখনো দেখা হয়নি। আপনার তোলা ছবিগুলোর মাধ্যমে তা কিছুটা হলেও দেখতে পেলাম। ধন্যবাদ দাদা আপনাকে। শারদীয়ার শুভেচ্ছা রইল দাদা।

দাদা শারদীয় শুভেচ্ছা। অনেক ভালো লাগলো আপনার পূজা মন্ডব এর ছবি গুলা। শুভকামনা দাদা💓

Impressive display and ornaments